ফেসবুক প্রেমিকের সাথে পালাতেই খুনের নাটক, অতঃপর…





প্রতিবেদক, টাইমসবাংলা.নেটঃ
খুন হননি তিনি, ফেসবুক প্রেমিকের সাথে পালাতে আর স্বামীর চোখকে ফাঁকি দিতে নিজেই তৈরী করেছিলেন নিজের খুনের নাটক। যা বের হয়ে এসেছে পুলিশি তদন্তে।

নাটোরের বড়াই গ্রামে খুনের নাটক সাজিয়ে পালানো গৃহবধূ মুক্তি প্রেমিকসহ গ্রেফতার হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানানো হয়।

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, ৬ থেকে ৭ মাস আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বড়াই গ্রামের গৃহবধূ মুক্তির সাথে ময়মনসিংহের বাসিন্দা আবিদের পরিচয় হয়। পরে কথোপকথনে তাদের সম্পর্ক আরও গভীর হয়। একপর্যায়ে তারা দুজন পালিয়ে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। মুক্তি বিবাহিত হলেও তা কৌশলে চেপে যায়।

মুক্তি পালানোর ৩-৪ দিন আগে মুক্তি (তাকে হত্যা করা হয়েছে) এমন ভঙ্গিমায় কয়েকটি ছবি তুলে মোবাইলে এডিট করে রাখে। পরে সে বাড়ি থেকে পালিয়ে যাবার পর ছবিগুলো তার স্বামীর ভাইয়ের স্ত্রীকে পাঠায়। সেই সাথে একটি ক্ষুদে বার্তায় লেখে মুক্তিকে হত্যা করা হয়েছে। তার লাশ খুঁজে নিতেও বলা হয়।

এতে করে মুক্তির পরিবার ও তার স্বামীর পরিবারের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। সবাই আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে। পরবর্তীতে গত ১১ মে মুক্তির স্বামী নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করে।

মামলার সূত্র ধরে নাটোর পুলিশের একটি চৌকস দল তথ্যপ্রযুক্তি এবং ময়মনসিংহ পুলিশের সহায়তায় কথিত ভুক্তভোগী মুক্তি এবং তার প্রেমিক আবিদকে ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে। নিজেকে সবার কাছ থেকে আড়াল করতেই খুনের নাটক সাজিয়েছিল বলে প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে মুক্তি। তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

গনমাধ্যম

স্বাস্থ্য

বিশেষ সংবাদ

কৃষি ও খাদ্য

আইন ও অপরাধ

ঘোষনাঃ