হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে মাঠে পুলিশ সুপার





প্রতিনিধি, টাইমসবাংলা.নেটঃ
ফরিদপুরে রোববার সকাল পর্যন্ত ৬৮২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে আনা হয়েছে। তবে বিদেশ হতে চলতি মাসের ২০ তারিখ পর্যন্ত আসা ৩ হাজার ৫৭৪ জন বিদেশ ফেরত যাত্রীর এখনো সন্ধান মিলেনি। তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খুঁজছে পুলিশ। পাশাপাশি তাদেও উপস্থিতি নিশ্চিত হয়ে সেসব বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনের স্টিকার সাটিয়ে দেয়া হচ্ছে।

জেলা পুলিশ সুত্রে জানা যায়, ১ মার্চ থেকে গত ১৯ মার্চ পর্যন্ত ফরিদপুরে চিন, ইতালী, ভারত, সৌদি আরব, সিঙ্গাপুরসহ ৪৪টি দেশ থেকে মোট ৪ হাজার ২৫৬জন নাগরিক ফরিদপুরে ফিরে এসেছেন। এর মধ্যে ১ মার্চ থেকে ৫ মার্চ পর্যন্ত এসেছেন ১ হাজার ২৯৬জন। এর মধ্যে শনিবার পর্যন্ত ৮৬৭ জনের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হয়েছে।

এরমধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় হোম কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে ৪০৬ জনকে। বোয়ালমারী উপজেলায় ১২৮, মধুখালীতে ৬৮, ফরিদপুর সদরে ৪৭, আলফাডাঙ্গা ও চরভদ্রাসনে ৩৯ জন করে, সদরপুরে ৩০, ভাঙ্গায় ২৯, সালথায় ২১ এবং নগরকান্দায় ৭জনকে হোম কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে।

ফরিদপুরের জেলা পুলিশ সুপার আলিমুজ্জামান বলেন, ৬ মার্চ হতে ২০ মার্চ পর্যন্ত ৪৪টি দেশ থেকে ফরিদপুরের লোকেরা দেশে ফিরেছেন। ১৭ তারিখে আমরা তাদের তালিকা পেয়েছি। প্রথমে এ তালিকায় ৩ হাজার ৬৩ জন ছিলো। পরবর্তী চারদিনে এ সংখ্যা বেড়ে ৪ হাজার ২৫৬ জনে দাড়িয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে তাদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছি। তাদের উপস্থিতি নিশ্চিত হয়ে আমরা তাদের বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইন লেখা সম্বলিত স্টিকার লাগিয়ে দিচ্ছি। তাতে কবে তারা দেশে ফিরেছেন এবং কবে নাগাদ তাদের কোয়ারেন্টাইন শেষ হবে তাও লিখে দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, এসব বিদেশ ফেরত লোকদের অনেকেই বাড়িতে না এসে ফরিদপুরের বাইরে রয়েছেন। তাদের ব্যাপারেও খোঁজ খবর নিচ্ছি।

পুলিশ সুপার আলিমুজ্জামান বলেন, যাদের সময়সীমা ১৪ দিন অতিবাহিত হয়ে গেছে তাদের আর হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার প্রয়োজন নেই। তিনি বলেন, এ পর্যন্ত বিদেশ থেকে যত ব্যক্তি এসেছেন তাদের মধ্যে ১ হাজার ৭৫৫জন এসেছেন ভারত থেকে। এছাড়া করোনা আক্রান্ত দেশের মধ্যে চীন থেকে এসেছেন ১ জন, ইটালী থেকে এসেছেন ২৫জন, সৌদি আরব থেকে এসেছেন ৩১৩জন এবং সিঙ্গাপুর থেকে এসেছেন ৬৬জন।



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

গনমাধ্যম

স্বাস্থ্য

বিশেষ সংবাদ

কৃষি ও খাদ্য

আইন ও অপরাধ

ঘোষনাঃ