ফরিদপুরে দুই যৌন পল্লী লকডাউন, বন্ধ পশুর হাট, মোট কোয়ারেন্টাইনে ৬৮২ জন





প্রতিনিধি, টাইমসবাংলা.নেটঃ
ফরিদপুর শহরের সিএন্ডবিঘাট ও রথখোলা দুটি যৌন পল্লীকে লক ডাউন করেছে জেলা প্রশাসন। বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে জেলার সকল পশুর হাট। জেলার জেনারেল হাসপাতাল ও সালথা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ সন্দেহভাজন করোনা রুগীদের জন্য আইসোলেশন ইউনিট গঠন করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। এছাড়াও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও রয়েছে আলাদা ইউনিট।

করোনার প্রভাব কে সামনে রেখে অবাদ বিচরণ ঠেকাতে শরিবার দুপুরে ফরিদপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মাসুম রেজা জেলার দুটি যৌন পল্লীতে স্থানীয় পুলিশের সহায়তায় পল্লী দুটি অনিদিষ্টকালিন সময়ের জন্য লক ডাউন করে দেন। আজ রবিবার এই দুই পল্লীর ৫ শতাধীক সদস্যদের মাঝে জনপ্রতি ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ করে জেলা প্রশাসন।

পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে জেলার নয়টি উপজেলার ৮৪টি ইউনিয়নের জনসচেনতায় চলছে বিভিন্ন ধরনের প্রচারণা। ইতিমধ্যে জেলার পুলিশ সুপার করোনায় পুলিশের কি করণিয় তা নিয়ে পুলিশের সকল সদস্যকে নির্দেশনা দিয়েছে। পুলিশ সুপার মো. আলীমুজ্জামান এর নেতৃত্বে প্রবাসীদের কোয়ারেন্টাইনে থাকা বাধ্যতামূলক, বাজার নিয়ন্ত্রনে বিশেষ ভুমিকা পালন করছে ৯ টি থানাসহ জেলা পুলিশ।

পৌরসভার পক্ষ হতে শহরে করোনায় সচেনতার লক্ষে মাইকিং করতে দেখা গেছে। বিভিন্ন এলাকার সামাজিক সংগঠনের পক্ষ হতেও করোনায় কি করনীয় তা নিয়ে মানুষকে সচেতন করতে দেখা গেছে। তবে শহরের সড়ক ও বাজারগুলোতে জনগনকে অন্যদিনের মতো স্বাভাবিক নিয়মে চলতে দেখা গেছে।

এদিকে রবিবার গনমাধ্যমকর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে জেলা প্রশাসক অতুল সরকার জানান, জেলার সকল পশুর হাট পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। প্রবাসীদের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক। কেউ নির্দেশনা না মানলে প্রশাসনকে জানানোরও অনুরোধ করেন তিনি।

এদিকে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের দেয়া তথ্য মতে জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৬৮২ জন। তাদের কেউই করোনায় আক্রান্ত নন। #



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

গনমাধ্যম

স্বাস্থ্য

বিশেষ সংবাদ

কৃষি ও খাদ্য

আইন ও অপরাধ

ঘোষনাঃ