বগুড়ায় দুই সাংবাদিককে মারপিট/ক্যামেরা-মাইক্রোফোন ছিনতাই





প্রতিবেদক, টাইমসবাংলা.নেটঃ
বগুড়ায় ঐতিহাসিক মুজিববর্ষে গৃহহীনদের জন্য বাড়ি তৈরির প্রকল্পে অনিয়মের অনুসন্ধান করতে গিয়ে হামলা ও মারপিটের শিকার হয়েছেন সময় টেলিভিশনের দুই সংবাদকর্মী। বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার নিশিন্দারা ইউনিয়নের দশটিকা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে ৮/১০ জনের একটি দল সময় টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার মাজেদুর রহমান এবং চিত্রসাংবাদিক রবিউল ইসলামকে বেধড়ক পিটিয়ে তাদের ক্যামেরা, মাইক্রোফোন এবং মোবাইলফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে তাদেরকে অচেতন অবস্থায় সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়।

সাংবাদিক মাজেদুর রহমান জানান, প্রকল্পটিতে নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে ঘর নির্মাণ হচ্ছে-এমন তথ্যের ভিত্তিতে দুপুরে তিনি নিশিন্দারা ইউনিয়নে যান। ফুটেজ এবং তথ্য সংগ্রহ শুরু পর স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য লুৎফর রহমান লাল মিয়া সেখানে আসেন এবং কাজের মান খারাপ নয় এ কথা দাবি করেন। এ সময় তার সঙ্গে থাকা স্থানীয় শ্রমিক লীগ নেতা জনিসহ ৮/১০ জন মাজেদ এবং চিত্র সাংবাদিক রবিউল ইসলামের ওপর হামলা চালায়।

হামলাকারীরা তাদের লোহার রড, বাটাম ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে সময় টেলিভিশনের ক্যামেরা, মাইক্রোফোন এবং চারটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে সহকর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশের সহায়তায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মাজেদ ও রবিউলকে উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ুন কবির জানান, খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে চিত্র সাংবাদিক রবিউলকে অচেতন এবং রিপোর্টার মাজেদকে গুরুতর আহত অবস্থায় পেয়েছেন। ঘটনায় জড়িতদের আটক এবং ক্যামেরা-মাইক্রোফোন উদ্ধারে পুলিশ কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিকদের মারপিট এবং ক্যামেরা ছিনতাইয়ের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বগুড়া টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি। বুধবার বিকেলে এক বিবৃতিতে এই নিন্দা জানান সংগঠনের সভাপতি জিএম সজল এবং সাধারণ সম্পাদক মেহেরুল সুজন। এই ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় শহরের বীরশ্রেষ্ঠ স্কয়ার এলাকায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচিও ঘোষণা করেছে টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি।







মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

গনমাধ্যম

স্বাস্থ্য

বিশেষ সংবাদ

কৃষি ও খাদ্য

আইন ও অপরাধ

ঘোষনাঃ